ফেসবুকে গ্রপে আপনার ইউটিউব লিংক শেয়ার করলে কত টুকু সফল হবেন বা কুফল পাবেন জেনে নি!

আজকের এই লেখাটি ইউটিউব সংক্রান্ত নয় বরং গ্রুপে লিংক শেয়ার করা নিয়ে একান্তই আমার নিজের কিছু মতামত। লিংক শেয়ার করার সুফল বা কুফল নিয়েই আমার কিছু ব্যক্তিগত ধারণা আপনাদের তুলে ধরবো। আপনারাই বিচার করে নেবেন যে শেয়ার করা উচিত কি না।
ইউটিউবে সফলতার মুল উপায় হচ্ছে যত বেশী ভিউয়ারসকে আনা যাবে ততবেশী সফলতা। এবং সেই লক্ষ্যেই আপনারা লিংক শেয়ার করে থাকেন। মুলত: যারা নতুন তারাই হতাশা থেকে এই কাজটি করে থাকেন। ভাবেন যে, কিছু ভিউ এবং সাবস্ক্রাইবার বাড়লে সমস্যা কি? কিন্তু বাস্তব সত্য কথা হচ্ছে গ্রুপে শেয়ার করার ফলে আপনার এই আশাটি সাময়িক হয়তো পূর্ণ হবে কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হবেনা। কারণ এই গ্রুপে যারা আছি তারা কেউই কিন্তু দর্শক নই। এখানে সবাইই কনটেন্ট ক্রিয়েটর। কোন কনটেন্ট ক্রিয়েটর আপনার চ্যানেলে গেলে প্রথমেই আপনার চ্যানেলটি কি নিয়ে কাজ করছেন, কিভাবে করছেন, কোথা থেকে ফুটেজ সংগ্রহ করছেন এসব নিয়ে সে তথ্য উপাত্ত যোগাড় করবে। যে ক্রিয়েটর আপনার চ্যানেলে যাচ্ছেন সেখানে আপনার চ্যানেল যদি খুবই ভালো কিছু হয় তাহলে তার কিছুটা হয়তো উপকার হয়ে কারণ সে আপনার চ্যানেল থেকে ডাটা সংগ্রহ করবে, আইডিয়া নিবে কিন্তু আপনার কোন উপকার হবেনা, কারণ সে চুপচাপ ডাটা নিয়ে চলে আসবে। মুল কথা হচ্ছে ইউটিউবে সফল হতে হলে যে কোটি কোটি ভিউ দরকার তার সামান্য অংশও আপনি এখানে শেয়ার করে পাবেন না, এমনকি তথ্যগত কোন উপকারও পাবেন বলে মনে হয়না। অযথা আপনার আইডিয়া শেয়ার হয়ে আপনার কম্পিটিটর বাড়বে। অনেকে এই অংশে এসে আমাকে স্বার্থপর ভাবতে পারেন কিন্তু বাস্তবতা হলো আপনার ইউনিক কনটেন্ট আইডিয়া যখন চুরি হবে তখন আপনার চেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্থ আর কেউ হবেনা। আপনার একটি আইডিয়াকেই ইমপ্রোভাইজড করে অন্যজন সফল হবে কিন্তু আপনার অজ্ঞতার কারণে বা স্প্যামিংয়ের দিকে আপনার মনযোগ থাকার কারণে আপনি আইডিয়ার মুল ব্যক্তি হওয়া সত্বেও সফল হবেন না। এসবের পরও কমিউনিটিতে ক্রিয়েটরের চাইতে কপিবাজই অনেক বেশী। আপনার আইডিয়াকে আপনি সযতনে মুল ভিউয়ারসদের জন্য তুলে রাখুন। গ্রুপকে আপনার প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জায়গা হিসেবে ব্যবহার করুন। বিশ্বাস করুন আর নাই করুন যতো নন-এক্সপার্ট, নাদান ব্যক্তি আপনার চ্যানেল ভিজিট করবে ততই আপনার লাভ। কোন কনটেন্ট ক্রিয়েটরকে দিয়ে আপনার চ্যানেল ভিজিট করালে কোন লাভ নেই। লক্ষ্য করে দেখবেন ষ্ট্যাবলিশড চ্যানেল কখনোই লিংক শেয়ার করেনা। আমার ব্যক্তিগত মতামত হচ্ছে আপনার কনটেন্ট ক্রিয়েটরদের সাথে কখনোই শেয়ার করবেন না, বরং অরিজিনাল ভিউয়ারসদের সাথে শেয়ার করার জন্য কি কি উপায় আছে তা অবলম্বন করুন। অনেকে আবার প্রশ্নের ছলে ইমেজ দিয়ে আপনার চ্যানেলের নামটি সবার সামনে আনছেন। লাভ না ক্ষতি হচ্ছে তা নিজেই ভেবে নিন।
এতো গেলো আপনার ক্ষতির কথা, এবারে গ্রুপে যদি শেয়ার করতে থাকেন তাহলে গ্রুপেরও ক্ষতি হচ্ছে সমান ভাবে। মানুষ ভালো কোন পোষ্টের দিকে নজর না দিয়ে আপনার দেয়া পোষ্টের দিকে মনযোগ চলে যাচ্ছে, গ্রুপের লক্ষ ও পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। এডমিন-মডারেটরদের মডারেশন করতে গিয়ে অযথা হিমশিম খেতে হচ্ছে। লিংক পোষ্ট দেয়ার অনুমতি থাকলে অনেকেই এডাল্ট কনটেন্টও যে শেয়ার করে দেবেন তা মডারেশন প্যানেলে গেলেই বোঝা যায়।
তাহলে কিভাবে ভিউ বাড়াবো? উত্তর একটাই, পর্যবেক্ষণ করুন, বুঝুন, শিখুন, তারপর ভিডিও বানান। কোন ভিডিওগুলো কেনো মানুষ বেশী দেখছে সেগুলো লক্ষ্য করুন। টেকনিক্যাল বিষয়গুলো সম্পর্কে গ্রুপে প্রশ্ন করুন, ভালো ভাবে জেনে নিন। টাইটেল, এসইও, থাম্বনেইল, এডিট, এনিমেশন এসব বিষয়ে জোর দিন। বিশ্বাস করুন আর নাই করুন ভালো কনটেন্টের জন্য কিছুই লাগেনা। আর কনটেন্ট খারাপ হলে আপনি শত স্প্যামিংয়েও কোনদিন পকেটে টাকা ঢুকাতে পারবেন না।
আমিও আপনাদের মতোই নতুন মানুষ। কিন্তু লিংক শেয়ার করে বড় হওয়ার চেষ্টা করছিনা। বরং পর্যবেক্ষণ করে পুরোনোকেই ঘষেমেজে নতুন কিছু করার চেষ্টা করছি। উপরের মতামত আমার একান্তই নিজের, কারো যুক্তিযুক্ত দ্বিমত থাকলে সাদরে গ্রহণীয়।
ভালো থাকুন সবাই
হ্যাপি ইউটিউবিং

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *